মাতালকে বাঁচাতে গিয়ে রেলের চাকায় শেষ হয়ে গেল শিক্ষনবিশ রেলকর্মীর সব স্বপ্ন

রাজ্য রেল
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Published on: ফেব্রু ২৮, ২০১৮ @ ২৩:৩২

এসপিটি নিউজ, খড়্গপুর, ২৮ ফেব্রুয়ারিঃ শিক্ষানবিশ কর্মী হিসেবে রেলের কাজে যোগ দিয়েছিলেন। গ্রামের গরিব অসহায় পরিবার থেকে এসে বড় হওয়ার স্বপ্ন দেখেছিলেন।কিন্তু সেই স্বপ্ন স্বপ্নই রয়ে গেল।এক মাতালকে বাঁচাতে গিয়ে শেষে কিনা শেষ হয়ে জীবনের সব স্বপ্ন। রেলের চাকায় মাতালের পাশাপাশি প্রাণ গেল তারও। মৃত রেলকর্মীর নাম পরমানন্দ সোয়াইন (২৭)।বুধবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে খড়্গপুর-টাটা রেললাইনে।

ঘটনায় প্রকাশ, বুধবার রাত ৮টা ৪০ মিনিট নাগাদ টাটা-খড়্গপুর ডাউন লোকাল ট্রেন আসছিল। সেইসময় লাইনে এক মাতাল পড়ে যায়। কাছেই ছিলেন রেলের শিক্ষানবিশ কর্মী পরমানন্দ।তিনি কোনও কিছু না ভেবেই ঝাঁপ মারেন লাইনে। ট্রেন তখন একেবারে সামনে চলে এসেছে। তিনি সেই মাতালকে ধরে লাইনের বাইরে আনার চেষ্টা কর্ছিলেন। কিন্তু শেষ রক্ষা আর হল না। ট্রেনের চাকায় কাটা পড়ে গেলেন তিনি। বাঁচাতে পারেননি সেই মাতালকেও। দুইজনের সলিল সমাধি হয় সেই ট্রেনের চাকায়।

এই ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে আসে। এভাবে এক মাতালকে বাঁচাতে গিয়ে নিজের প্রাণ বিসর্জন দেবার ঘটনায় এলাকার মানুষজন স্তম্ভিত। সকলেই এই যুবকের এমন প্রয়াসের জন্য একদিকে যেমন বাহবা দিচ্ছে ঠিক তেমনই শোক প্রকাশ করছে। এলাকাবাসী মনে করছে, যেভাবে একজন শিক্ষানবিশ রেলকর্মী অন্যের জীবন বাঁচাতে গিয়ে নিজের প্রাণ বিসর্জন দিল তার জন্য তার পরিবারের পাশে দাঁড়ানো উচিত রেলের।

মৃত ঐ যুবকের বাড়ি ঝাড়খণ্ডের পশ্চিম সিংভূম জেলার মনঝারি থানার ছিটিমিটি গ্রামে। তবে মৃত মাতালের পরিচয় জানা যায়নি। রেল পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

Published on: ফেব্রু ২৮, ২০১৮ @ ২৩:৩২


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *