দিশেহারা বনকর্মীদের ছুটিয়ে মারছে দাঁতালের দল, নাজেহাল গ্রামবাসীরা

বন্যপ্রাণ রাজ্য
শেয়ার করুন

সংবাদদাতা-বাপ্পা মণ্ডল                                        ছবি-বাপন ঘোষ

Published on: আগ ১২, ২০১৮ @ ১৯:৪২

এসপিটি নিউজ, লালগড়, ১২ আগস্টঃ বন্যপ্রাণীদের দেখভাল তাদের জন্য যাতে সাধারণ মানুষকে হয়রান না হতে হয় তাদের থেকে যাতে মানুষ সুরক্ষিত থাকে আবার একইভাবে মানুষের আক্রমণ থেকজে যাতে বন্যপ্রাণিদের কোনও ক্ষতি না হয় এসব দিক নিয়েই কাজ করতে বন দফতরকে। বিদেশেও এমন বহু জায়গা আছে যেখানে জঙ্গল লাগোয়া এলাকায় মানুষের বাস। আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে সাম্প্রতিককালে এরকম কটা খবর প্রকাশিত হয়েছে যেখানে বন্যপ্রাণীরা মানুষের অনিষ্ট করেছে। অথচ ঠিক বিপরীত ছবি আমাদের দেশে। প্রায় হাতির হানায় ফসল নষ্ট আর হাতি তাড়াতে ব্যর্থ বনকর্মীরা। যেমনট হয়ে চলেছে লালগড়ের বিরকাঁড় গ্রামে।

লালগড়ের কামরাঙ্গি ,পড়িহা,ঝিটকার জঙ্গলে ৫০থেকে ৬০ টি হাতির একটি দল বেশ কয়েকদিন ধরে ঘোরা ফেরা করছে। বলা হচ্ছে জঙ্গল ছেড়ে যেতে চাইছে না। এ কিরকম কথা বুঝুন! হাতিরা তো জঙ্গলেই থাকে তারা তো লোকালয়ে থাকবে না। এখন এই হাতির দল জঙ্গলে ঢুকলেও বিপদ। কারণ জঙ্গল লাগোয়া গ্রামে তার যদি ঢুকে পড়ে। ধুকে তারা পড়ছেও। এখন এই হাতির দলকে কি করলে জঙ্গলের ভিতর আটকে রাখা যায়, কি করলে তাদের লোকালয়ে আসা বন্ধ করা যায় তার কোনও উপায় বের করতে পারে না দায়িত্ববান বন আধিকারিকরা। যার ফলে সমস্যা সমস্যাই রয়ে গিয়েছে।

বনদফতর সূত্রে খবর পশ্চিম মেদিনীপুরের গোয়ালতোড়ের দিক থেকে ১৫টি হাতির একটি দল লালগড়ের দিক নতুন করে আসছে। ফলে চিন্তায় বনবিভাগ ও সাধারণ মানুষ।এর আগে একটি দাঁতাল জঙ্গল থেকে বেরিয়ে বিরকাঁড় গ্রামে ঢোকার চেষ্টা করলে গ্রামের মানুষ আগুন ও মশাল জ্বালিয়ে হাতিটিকে গ্রামে ঢোকা থেকে আটকায়।

Published on: আগ ১২, ২০১৮ @ ১৯:৪২

 

 

 


শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

64 − = 59