ভারত-পাক সম্পর্ক গড়তে বড় ভূমিকা নিয়েছিলেন অটল বিহারী বাজপেয়ী

দেশ বিদেশ
শেয়ার করুন

Published on: আগ ১৬, ২০১৮ @ ২০:৩৪

এসপিটি নিউজ ডেস্কঃ প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ী ভারত-পাক সম্পর্ক মজবুত করার দিকে জোর দিয়েছিলেন। ১৯৯৯ সালে সরকার গঠনের পর,  অটল বিহারী বাজপেয়ী দুই-দিনের (১৯-২০ ফেব্রুয়ারি) সফরে পাকিস্তানে গিয়েছিলেন। তারপর তিনি দিল্লি-লাহোর বাস সার্ভিস শুরু করেন এবং বাসে লাহোর যান।

এই পরিষেবাটি উদ্বোধনকালে, প্রথম যাত্রী হিসাবে বাজপেয়ী পাকিস্তান সফর ঙ্গিয়েছিলেন। সেসময় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ ভারত-পাকিস্তান সীমান্ত ওয়াগায় টল বিহারী বাজপেয়ীকে স্বাগত জানিয়েছিলেন। এখানে তিনি তৎকালীন পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের সাথে দেখা করেছিলেন এবং একে অপরের সাথে নতুন সম্পর্ক শুরু করেছিলেন।

বাজপেয়ী যিনি শুরু থেকেই পারমাণবিক পরীক্ষা চালান এবং ১৯৯৮ সালে তিনি পাঁচ বার পরমানু পরীক্ষা করে আমেরিকা ও পাকিস্তানকে চমকে দেন। এই সময়ে, দুই দেশের মধ্যে লাহোর ঘোষণার একটি দ্বিপক্ষীয় চুক্তি হয়।  কিন্তু মাত্র কয়েক মাস পরে, ভারতে পাকিস্তানী অনুপ্রবেশের কারণে কার্গিল যুদ্ধ শুরু হয়েছিল।

এই বাস সার্ভিসটি কার্গিল যুদ্ধের সময়ও অব্যাহত ছিল। তবে ২০০১ সালে সংসদ আক্রমণের পর এটি বন্ধ করে দেওয়া হয়। ২০০৩ সালের ১৬ জুলাই, দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের উন্নতির পর, এটি আবার শুরু হয়েছিল। এর পরে, ২০০৪ (৪-৬ জানুয়ারি)সালে, অটল বিহারী বাজপেয়ী ইসলামাবাদে অনুষ্ঠেয় সার্ক সম্মেলনে উপস্থিত থাকতে সেখানে পৌঁছেছিলেন।

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টোর সাথেও সাক্ষাৎ করেছিলেন অটল বিহারী বাজপেয়ী। ২০০১ সালের ১৫ ও ১৬ জুলাই আগ্রায় পাক প্রেসিডেন্ট পারভেজ মুশাররফের সঙ্গে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ীর মধ্যে বৈঠক হয়। কিন্তু এই বৈঠক শেষ হতেই দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক শেষ হয়ে যায়।

Published on: আগ ১৬, ২০১৮ @ ২০:৩৪


শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

33 − 29 =