“নির্বাচনের আগেই তৃণমূলের কোমর আমরা ভেঙে দেব”-দিলীপ ঘোষের এই মন্তব্য ঘিরে ফের ছড়াল বিতর্ক

রাজ্য লোকসভা ভোট 2019
শেয়ার করুন

দিলীপের হুঙ্কার-

  • “লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলকে কেউ বাঁচাতে পারবে না।”
  • “কেন্দ্র টাকা দেওয়া সত্ত্বেও রাজ্য বর্ডারগুলিকে সুরক্ষিত রাখার কোনও কাজই করেনি।”
  • “রোহিঙ্গা ও অনুপ্রেবেশকারীদের ভোটার কার্ড তৈরি করে দিচ্ছে তৃণমূল।”

সংবাদদাতা-বাপ্পা মন্ডল

ছবি-বাপন ঘোষ

Published on: মার্চ ৩১, ২০১৯ @ ২১:৩৭

এসপিটি নিউজ, মেদিনীপুর, ৩১ মার্চঃ সমানে চলছে রাজনৈতিক বাক্যবান। কয়েকদিন আগে বসিরহাটের বিজেপি প্রার্থী সায়ন্তন বসু বলেছিলেন-“আধা সামারিক বাহিনীকে বলব পায়ে নয় বুকে গুলি করুন।” যা নিয়ে শোরগোল পড়ে গিয়েছিল রাজনৈতিক মহলে। নির্বাচন কমিশনে তা নিয়ে অভিযোগ দায়ের হওয়ার পর বিজেপি প্রার্থীকে শোকজ করে কমিশন। এবার দলের রাজ্য সভাপতি মেদিনীপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী দিলীপ ঘোষ আজ একেবারে সাংবাদিক সম্মেলন করে তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে আক্রমন শানান। বলেন-“নির্বাচনের আগেই তৃণমূলের কোমর আমরা ভেঙে দেব।”

সাংবাদিক সম্মেলনে দিলীপ ঘোষের হুঙ্কার

1) শনিবার রাতে দাসপুরে নির্বাচনী প্রচারে বেড়িয়ে ছিলেন ঘাটালের বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষ। তাঁর গাড়িতে হামলা হয়। অভিযোগ তৃণমূলের লোকজন এই হামলা চালায়। ভারতীর নির্বাচনী এজেন্টকেও মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। সেই প্রসঙ্গ তুলে ধরেন বেজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন-“তৃণমূল বুঝতে পেরেছে আর ওরা ক্ষমতায় থাকবে না। তাই ওরা বিজেপি প্রার্থীর উপর হামলা করতে ছাড়ছে না।” এরপরই তিনি আক্রমনাত্মক হয়ে ওঠেন।

2) বলেন-“নির্বাচনের আগেই তৃণমূলের কোমর আমরা ভেঙে দেব, যাতে আর ওরা উঠতে না পারে। লোকসভা নির্বাচনে ওদের কেউ বাঁচাতে পারবে না। রাজ্যে পুলিশ দিয়ে এই নির্বাচন হবে না। নির্বাচনে কাজ করবে কেন্দ্রীয় বাহিনী।”

রাজ্যের সীমান্তবর্তী এক হাজার বর্ডার অসংরক্ষিত-দিলীপ

3) “রাজ্যের সীমান্তবর্তী এক হাজার বর্ডার অসংরক্ষিত। কেন্দ্র টাকা দেওয়া সত্ত্বেও রাজ্য বর্ডারগুলিকে সুরক্ষিত রাখার কোনও কাজই করেনি। ঐ অসংরক্ষিত বর্ডার দিয়ে রোহিঙ্গা ও অনুপ্রেবেশকারীরা রাজ্যে ঢুকছে। তাদের ভোটার কার্ড তৃণমূল তৈরি করে দিচ্ছে। তারা তৃণমূলের হয়ে কাজ করছে। রাজ্যে বিজেপি ক্ষমতায় এলে এনআরসি লাগু করা হবে। রোহিঙ্গা ও অনুপ্রবেশকারীরা রাজ্যে এসে চাকরি ও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে থাবা বসিয়েছে। যার ফলে অর্থনৈতিক সংকট থেকে নানা সমস্যা দেখা দিয়েছে।”

এর আগে দিলীপ ঘোষ মেদিনীপুর শহরের লালদিঘি থেকে কেরানিতলা পর্যন্ত রোড-শো করেন। যেখানে ভিড় উপচে পড়েছিল। তার আগে তিনি মেদিনীপুর শহরের লালদিঘি এলায় বিজেপি কর্মী শুভ দোলুইয়ের বাড়িতে মধ্যাহ্ন ভোজ সারেন।

Published on: মার্চ ৩১, ২০১৯ @ ২১:৩৭

 


শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

88 + = 97