দিদি বলেছিলেন বলেই ভোটে দাঁড়িয়েছিলাম, ফের বললে আবারও দাঁড়াব-ডেবরায় বললেন দেব

Main রাজ্য
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সংবাদদাতা– বাপ্পা মণ্ডল                                         ছবি-বাপন ঘোষ

Published on: নভে ২৮, ২০১৮ @ ২১:২৬

এসপিটি নিউজ, ঘাটাল, ২৮ নভেম্বরঃ দুর্গা পুজো শেষ হয়ে রাস উৎসবও শেষ হল। এতদিনে ঘাটালের সাংসদ দীপক অধিকারী ওরফে দেব-এর বিজয়া সম্মেলন করার সময় হল। সাংসদ হওয়ার পর কতবার তিনি তাঁর নির্বাচনী কেন্দ্রে এসেছেন তার হিসেব বলবে এলাকার মানুষ। কিন্তু আজ বুধবার তাঁর আয়োজনে অনুষ্ঠিত এই অনুষ্ঠানে দাঁড়িয়ে দেব এমন একটা কথা বললেন যা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে প্রশ্ন উঠল তবে কি তাঁকে দলের অনেকেই পছন্দ করছে না? তা না হলে কেন তিনি বলবেন-আপনারা বিরোধ ভুলে ঐক্য গড়ে তুলুন। কাদের তিনি বিরোধ ভুলে যেতে বলছেন কিসের ঐক্যের কথা তিনি বলছেন। তবে কি তাঁর এলাকায় দলের মধ্যে ঐক্য নেই?

দুদিন আগে মুখ্যমন্ত্রী তৃণমূলের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঝাড়গ্রামের সাংসদ ডা. ঊমা সোরেনকে জনসংযোগ বাড়াতে নির্দেশ দিয়ে বলেছিলেন মানুষের কাছে যাও। মানুষের কথা শোনো। এরপর ঘাটালের সাংসদ আবার নেত্রীর কথা বললেন। বিরোধ ভুলে ঐক্য গড়ে তুলতে বললেন। পুরনো কর্মীদের গুরুত্ব দেওয়ার কথা বললেন। হাতে হাত চলার কথা বললেন। মানুষের সঙ্গে কথা বলে তাদের সমস্যা জেনে তার সমাধান করার কথা বললেন। দিদি অর্থাৎ দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতকে শক্তিশালী করার কথা বললেন।

দলনেত্রী যে কাজ ছাড়া কিছুই বোঝেন না সেটা দলের আর পাঁচজন নেতার মতো ঘাটালের সাংসদ দেব নিজেও ভালমতোই বুঝতে পারছেন। ভোটে জেতার পর নিজের নির্বাচনী এলাকায় তিনি কতবার এসেছেন কতবার কতজন মানুষকে তিনি সাক্ষাত দিয়েছেন এলাকার কত মানুষের সঙ্গে তিনি কথা বলেছেন কজনের সমস্যার সমাধান করেছেন এসব নিয়ে ইতিমধ্যে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। সেটা দেব নিজেও বুঝতে পারছেন। তাঁর কাছে তাঁর ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি যে অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ সেটা এদিনের বিজয়া সম্মেলনী অনুষ্ঠান আয়োজনের মধ্যে দিয়েই পরিষ্কার হয়ে গেছে। অর্থাৎ এলাকার মানুষ বুঝেছে যে তাদের সাংসদের এতদিনে বিজয়া সম্মেলন করার সময় হল। এখন তাঁর মুখে দলের কর্মীদের শুনতে হচ্ছে “বিরোধ ভুলে ঐক্যবদ্ধ” হওয়ার কথা।

২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে তিনি ফের এই কেন্দ্র থেকে তৃণমূলের টিকিট পাবেন কিনা তা নিয়ে নিজেই ধন্দে আছেন। আর তাই এদিন বিজয়া সম্মেলনের মঞ্চে দাঁড়িয়ে বলে ফেলেন-“দিদি যদি ফের ভোটে দাঁড়াতে বলেন তাহলে আমি আবারও ভোটে দাঁড়াব।” একই সঙ্গে তিনি গত লোকসভা ভোটে দাঁড়ানোর ব্যাপারটি স্মরণ করে বলেন-“গতবার আমি ভোটে দাঁড়াবো বলে জানতাম না। দিদি বলেছিলেন বলেই আমি ভোটে দাঁড়িয়েছিলাম। আপনারা কঠোর পরিশ্রম করে আমাকে ভোট দিয়ে জিতিয়েছেন।”

এভাবে নিজের মুখে নিজের অবস্থার কথা বলতে থাকেন ঘাটালের সাংসদ। তাঁর এলাকার বেশ কয়েকজন তো বলছেন- “ওনার সঙ্গে যোগাযোগ করাই তো দুষ্কর ব্যাপার। এখন উনি আবার নীতি বাক্য শুনাচ্ছেন। আমাদের দলনেত্রী যেভাবে মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করে চলেন আমাদের চলতে বলেন সেটা উনি কতটুকু করেছেন।” নিজের কাজ নিয়ে বলতে গিয়ে দেব এদিন বলেন-“আমি আমার লোকসভা কেন্দ্রের সব কাজ করে ফেলেছি বলবো না, কিছু কাজ আমি করেছি। এখনো কিছু কাজ বাকি আছে। আমি কাজ করতে ভালবাসি। আপনাদের সহযোগিতায় আমি যতটা পেরেছি কাজ করেছি। আপনারা আমাকে ভোট দিয়েছিলেন বলেই আমি সাংসদ হয়েছি। তাই সকলকে আমি শ্রদ্ধা ও ভালবাসা জানাই।”

অনুষ্ঠানের শেষে দেব এদিন ৫০০জন দরিদ্র মানুষের হাতে কম্বল তুলে দেন।

Published on: নভে ২৮, ২০১৮ @ ২১:২৬

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *