টাফি’র চেয়ারম্যান অনিল পাঞ্জাবি’র চোখে এবারের টিটিএফ

Main দেশ ভ্রমণ রাজ্য
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Published on: সেপ্টে ১০, ২০২১ @ ২৩:৫৫
Reporter: Aniruddha Pal

এসপিটি নিউজ, কলকাতা, ১০ সেপ্টেম্বর:  গুজরাট থেকে টাফি’র মিটিং সেরে ফিরেছেন মাত্র পাঁচ দিন হয়েছে। এরই মধ্যে কলকাতায় টিটিএফ অর্থাৎ ভ্রমণ ও পর্যটনের মেলায় হাজির হয়েছেন। সারা বিশ্বে কি হচ্ছে তা পরিষ্কার করে না বলা গেলেও আমাদের দেশে পর্যটন ব্যবসা যে ফের মাথা তুলে দাঁড়াতে চলেছে তা নিয়ে একেবারে নিশ্চিত হয়ে গিয়েছেন ট্রাভেল এজেন্টস ফেডারেশন অব ইন্ডিয়ার চেয়ারম্যান অনিল পাঞ্জাবি। শুক্রবার কলকাতায় নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত টিটিএফ-এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হাজির হয়ে।

২০২০ সালের ২৫ মার্চের পর থেকে দেশে করোনা মহামারীর প্রকোপে অন্যান্য ক্ষেত্রের পাশাপাশি ভ্রমণ ও পর্যটন শিল্প একেবারে মুখ থুবড়ে পড়েছিল। বহু ছেলে-মেয়ে কাজ হারিয়েছিল। সেখান থেকে আজ দেশের পর্যটন শিল্প মুখ তুলে দাঁড়াতে শুরু করেছে। সেই প্রসঙ্গে টাফি’র চেয়ারম্যান অনিল পাঞ্জাবি এসপিটি-কে বলেন- ” কোভিড মহামারীর পর সারা দেশে পর্যটন শিল্প ফের জাগতে শুরু করেছে। টিটিএফ-এ যেভাবে একাধিক রাজ্যের পর্যটন বিভাগ প্যাভিলিয়ন দিয়েছে তা সত্যিই আশাব্যাঞ্জক। ইতি মধ্যে তো অনেকেই তাদের পুজোর ভ্রমণের পরিকল্পনা করে ফেলেছে। শুরু হয়ে গিয়েছে বুকিং। বিভিন্ন রাজ্য থেকে তো বেশ ভালোই খবর আসছে। টিটিএফে দেখা গেল বহু ভ্রমণপ্রিয় মানুষজন ভ্রমণের বিষয়ে জানতে ভিড় করছে। এটা তো পর্যটন শিল্পের ক্ষেত্রে একটা ইতিবাচক দিক।”

এখানেই থেমে না থেকে টাফি’র চেয়ারম্যান বলেন- ” পাঁচ দিন আগে আমরা যখন বিমান ধরার জন্য আমেদাবাদ বিমান বন্দরে প্রবেশ করছি তখন সেখানে কত মানুষজনকে দেখলাম। যাত্রীদের উপস্থিতি বেশ চোখে পড়ার মতো। মানুষ এখন ঘর ছেরে বেরোতে শুরু করে দিয়েছে। যাদের সেখানে দেখলাম তাদের অধিকাংশই হলে পর্যটক। সকলেই তারা গুজরাট ঘুরতে চলে এসেছে। ভাবতে পারেন!”

এখন পর্যটকরা দেশের ভিতরেই ঘুরতে বেশি পছন্দ করছেন। আগে যারা দেশের বাইরে অর্থাৎ বিদেশ ভ্রমণে আগ্রহী ছিলেন তারা এখন দেশের ভিতরেই ঘুরতে পছন্দ করছেন, আর সেটাকেই এখন বড় মূলধন করেছে একাধিক রাজ্য পর্যটন বিভাগ।বলছিলেন অনিল পাঞ্জাবি।

Published on: সেপ্টে ১০, ২০২১ @ ২৩:৫৫


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •