১২ বছরে ৭৫টি বাঘ কমেছে সিমলিপাল টাইগার রিজার্ভে

Main দেশ বন্যপ্রাণ
শেয়ার করুন

Published on: ডিসে ৩০, ২০১৮ @ ২৩:৫২

এসপিটি নিউজ ডেস্কঃ সারা ভারতে যখন বাঘ সংরক্ষণে ভাল ফল দেখা যাচ্ছে তখন ওড়িশায় ঠিক উল্টো ছবি দেখা যাচ্ছে। আর তা খুবই উদ্বেগের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। মাত্র কয়েক বছরে যেভাবে বাঘের সংখ্যা আশ্চর্যজনকভাবে কমেছে ওড়িশার সিমলিপাল টাইগার রিজার্ভে তা ন্যাশনাল টাইগার কনজার্ভেশন অথোরিটিকে চিন্তায় ফেলে দিয়েছে।

ওড়িশা সরকার সূত্রে জানা গেছে, সর্বশেষ বাঘ গণনা অনুসারে বাঘের পায়ের ছাপ ও ক্যামেরা ট্র্যাপ-এর সূত্র ধরে ২০১৬ সালে ময়ূরভঞ্জ জেলার সিমলিপাল টাইগার রিজার্ভ-এ ২৮টি বাঘের উপস্থিতি দেখা গেছিল, যার মধ্যে বিখ্যাত কালো বাঘ ছিল, যা কিনা সারা বিশ্বের মধ্যে একমাত্র স্থান এই ওড়িশায় যা এই বাঘের সংখ্যার উৎস স্থল।

ওড়িশার বন্যপ্রাণ সংস্থা বা ওয়াইল্ড লাইফ সোসাইটি অফ ওড়িশা দাবি করেছে যে ২০০৬ সালে সিমলিপালে ১০১টি বাঘ থাকলেও বর্তমানে তা নেমে এসেছে মাত্র ২৮। আর তা হয়েছে চোরাশিকারিদের কারণে। এখানে ৭৫টি বাঘ হারিয়ে গেছে।এটা ভাল লক্ষণ নয়। বাঘ সংরক্ষণের জন্য অতীতে কোটি টাকা খরচ করা হয়েছে। ওড়িশার বন্যপ্রাণ সংস্থার সম্পাদক বিশ্বজিৎ মহান্তি একথা সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে জানিয়েছেন।

তিনি আরও জানান,” প্রতি বছর কেন্দ্রীয় সরকার সিমলিপাল টাইগার রিজার্ভের জন্য ৫-৬ কোটি টাকা খরচ করে থাকে।গত ১২ বছরে রাজ্য ও কেন্দ্র সরকার উভয়ে ১০০ কোটি টাকারও বেশি খরচ করেছে।বর্তমানে চোরাশিকারির রমরমা বেড়েছে, এর দায় কে নেবে, বলতে পারেন?”

বন্যপ্রাণ সংস্থার সম্পাদক জানান, বিষয়টি ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েককে জানাবেন। ময়ূরভঞ্জ ও সিমলিপালে এই ঘটনা ঘটেছে।সংশ্নিষ্ট বিভাগকেও তারা এ ব্যাপারে অবগত করেছেন।তিনি আরও বলেছেন, ন্যাশনাল টাইগার কনজার্ভেশন অথোরিটি ইঙ্গিত দিয়েছে যে বাঘের সংখ্যা বৃদ্ধি করতে কিন্তু ওড়িশায় সেটা দেখা যাচ্ছে কমছে।

Published on: ডিসে ৩০, ২০১৮ @ ২৩:৫২


শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

41 − = 39