মহান কাজ: ভিক্ষা করে মাদুরাইয়ের এই বৃদ্ধা দিলেন COVID-19 ত্রাণ তহবিলে এতগুলি টাকা

Main কোভিড-১৯ দেশ
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

  • তামিলনাড়ুর থুতুকুরি জেলার আলানগিনারুর বাসিন্দা পুলপান্দিয়ান।
  • মাদুরাইয়ের জেলাশাসক টি জি বিনয়ের হাতে তাই যখন এই ব্যক্তি পুলপান্দিয়ান আজ 10 হাজার টাকা তুলে দেন।

 Published on: মে ১৮, ২০২০ @ ২৩:৩৬

এসপিটি নিউজ ডেস্ক:  গরিব মানুষদের সাহায্য কিংবা দান করে আমরা বোঝাতে চাই কী মহান কাজটাই না করেছি। কিন্তু সেই গরিব মানুষটি যদি আপনাকে সাহায্য করেন কিংবা দেশকে সাহায্য করেন তাহলে ছবিটা কী দাঁড়াতে পারে ভাবুন তো! হ্যাঁ, এমনটাই ঘটেছে মাদুরাইতে। কোভিড-১৯ ত্রাণ তহবিলে তেমনই এক বৃদ্ধ ভিক্ষা করে সেই টাকা তুলে দিয়েছেন সরকারের হাতে।এমনই এক মহান কাজ করেছেন মাদুরাইয়ের পুলপান্দিয়ান নামে এক ব্যক্তি।

স্ত্রীর মৃত্যুর পর ঠিক করেন জনস্বার্থে কাজ করবেন

তামিলনাড়ুর থুতুকুরি জেলার আলানগিনারুর বাসিন্দা পুলপান্দিয়ান। স্ত্রীর মৃত্যুর পর তিনি ঠিক করেন বাকি জীবনটা তিনি এভাবেই জনস্বার্থে কাজ করে যাবেন। এজন্য যদি ভিক্ষার পাত্র নিয়েও বস্তে হয় তাও তিনি করবেন। প্রয়োজনে যা টাকা উঠবে সেই টাকা তিনি জনস্বার্থেই অনুদান করে দেবেন। এজন্য তিনি কোনও প্রচার চান না।

প্রচার বিমুখ

কিন্তু তিনি প্রচার না চাইলে কী হবে! সংবাদ মাধ্যম কী তাঁর পিছু ছাড়বে? যেখানে মানুষ সামান্য কিছু করেই প্রচার চালিয়ে যায় সেখানে এমন মহান কাজের প্রচার হবে না, তা কী হয় কখনও? মাদুরাইয়ের জেলাশাসক টি জি বিনয়ের হাতে তাই যখন এই ব্যক্তি পুলপান্দিয়ান আজ 10 হাজার টাকা তুলে দেন সেই খবর মুহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে যায়।

এই অসাধারণ উদ্যোগ সব মহলেই প্রশংসা কুড়িয়েছে

সংবাদ সংস্থা এএনআই এই ব্যক্তির কয়েকটি ছবি তুলে ধরেছে। তাই বিষয়টি সকলের সামনে এনেছে। যেখানে দেখা গিয়েছে যে ওই ব্যক্তি জেলা প্রশাসনিক ভবনের সামনে ভিক্ষার পাত্র নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন।সেই পাত্রে দেখা গিয়েছে কিছু রুপি আছে। যা তিনি জেলাশাসকের হাতে তুলে দিয়েছেন কোভিড-19 ত্রাণ তহবিলে। পরিমান দশ হাজার টাকা। তিনি জানিয়েছেন, এর আগে তিনি শিক্ষা ক্ষেত্রে টাকা তুলে দিয়েছেন । এবার তিনি কোভিড-19 ত্রাণ তহবিলে অনুদান দিলেন।তাঁর এই অসাধারণ উদ্যোগ সব মহলেই প্রশংসা কুড়িয়েছে।

Published on: মে ১৮, ২০২০ @ ২৩:৩৬

 

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *