বিদেশে আটকে থাকা এ রাজ্যের মানুষদের ফেরাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিল TAFI

Main কোভিড-১৯ দেশ বিমান ভ্রমণ রাজ্য
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ রাজ্যের মানুষরা বিদেশ থেকে আসতে পারছেন- এই বিষয়টি সর্বপ্রথম সামনে আনে টাফি।
এরপরই রাজ্য সরকারের চিঠি পেয়ে আশ্বস্থ হয় কেন্দ্রীয় বিদেশ মন্ত্রক।

Published on: মে ১৯, ২০২০ @ ১৯:২৬  

এসপিটি নিউজ, কলকাতা, ১৯ মে:  গত এক সপ্তাহ ধরে বিদেশে আটকে থাকা ভারতীয়দের দেশে ফেরানো শুরু হয়েছে। কিন্তু এ রাজ্যের বহু মানুষ যারা বিদেশ থেকে দেশে ফিরতে চায় তারা ফিরতে পারছেন না। তাদের অভিযোগ ছিল- কলকাতায় তাদের ফেরানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে না। এই বিষয়টা সর্বপ্রথম ট্রাভেল এজেন্টস ফেডারেশন অব ইন্ডিয়া প্রকাশ্যে আনে। এরপর রাজ্য ও কেন্দ্র সরকার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করে।

টাফি-র চেয়ারম্যান অনিল পাঞ্জাবি অভিযোগ করেন

তিনদিন আগে কলকাতায় ট্রাভেল এজেন্টস ফেডারেশন অব ইন্ডিয়া বা টাফি-র চেয়ারম্যান অনিল পাঞ্জাবি অভিযোগ করেন- “বিদেশে আটকে পড়া বহু ভারতীয়কে দেশে ফেরানোর ব্যবস্থা করেছে ভারত সরকার। সেই মতো তাদের ফেরানোর কাজও চলছে। কিন্তু এর মধ্যে আমাদের পশ্চিমবঙ্গের শুধু নয় পূর্ব ভারতের বহু মানুষ বিদেশ থেকে টাকা দিয়েও বিমানের টিকিট পাচ্ছেন না। তারা বারেবারে ফিরিয়া আনার জন্য অনুরোধ করেও ফল পাচ্ছেন না। লন্ডন, আমেরিকা, জার্মানি, থেকে শুরু করে একাধিক দেশে এরকম কয়েক হাজার মানুষ আছে। পশ্চিমবঙ্গ সরকার তাদের দায়িত্ব মতো কাজ করেছে। কিন্তু তারপরেও তা কার্যকর হয়নি।”

রাজ্য জানিয়ে দেয় কোয়ারিন্টিনের ব্যবস্থা করা হয়েছে

এই অভিযোগ ওঠার পর কেন্দ্রীয় বিদেশ মন্ত্রক থেকে জানানো হয় যে তারা সবাইকেই ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে আগ্রহী। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে নিশ্চিত করতে হবে সেইসব মানুষদের কোয়ারিন্টিনে রাখার ব্যবস্থা কতটা পরিমানে করা হয়েছে। তাদের জন্য কোয়ারিওন্টিন তৈরি আছে কিনা। এওরপর রাজ্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক থেকে জানানো হয় যে তারা এর আগেও এই তথ্য জানিয়েছে। আবারও তারা জানাচ্ছে যে বিদেশ থেকে আসা মানুষদের জন্য রাজ্য কোয়ারিন্টিনের ব্যবস্থা করে রেখেছে। এরপরই কেন্দ্রীয় বিদেশ মন্ত্রক রাজ্য সরকারের এই সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে বলে যে তারা বিদেশ থেকে আটকে পড়া বাকি ভারতীয়দেরও ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করছে।

গতকালই একটি উড়ান কলকাতায় এসে পৌঁছেছে

টাফি-র চেয়ারম্যান অনিল পাঞ্জাবি জানান-” আমাদের কাছে বিদেশ থেকে একাধিক ফোন আসছিল। আতার সত্যিই খুব সমস্যার পড়ে গিয়েছিলেন। যাক শেষ পর্যন্ত তাদের ফেরানোর উদ্যোগ ভারত সরকার নিয়েছে। ইতিমধ্যে গতকালই একটি উড়ান কলকাতায় এসে পৌঁছেছে। আগামী কয়েকদিনে এরকম আরও কয়েকটি উড়ান বিদেশে আটকে থাকা ভারতীয়দের নিয়ে আসছে। টাফি এই ভূমিকা পালন করতে পারায় বহু মানুষ উপকৃত হল।একই সঙ্গে তিনি ধন্যবাদ জানিয়েছে কেন্দ্রীয় বিদেশ মন্ত্রক ও রাজ্য সরকারকে।”

Published on: মে ১৯, ২০২০ @ ১৯:২৬

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *