কলকাতায় বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশনে উদযাপিত বঙ্গবন্ধুর ১০২তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস ২০২২

Main দেশ বাংলাদেশ রাজ্য
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Published on: মার্চ ২৬, ২০২২ @ ১৬:২৪

এসপিটি নিউজ, কলকাতা, ২৬ মার্চ:  গত ১৭ মার্চ কলকাতায় যথাযথ মর্যাদায় বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশনে বিশ্বের অবিসংবাদিত নেতা, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি বাংলাদেশের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এঁর ১০২তম জন্মবার্ষিকী এবং ‘জাতীয় শিশু দিবস ২০২২’  যথাযথ মর্যাদায় উদযাপিত হয়েছে। এই উপলক্ষ্যে চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছিল। পাশাপাশি বঙ্গবন্ধুর উপর নির্মিত প্রামান্য চিত্র প্রদর্শ্নও করা হয়।

রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বানী পাঠ

১৭ মার্চ, ২০২২ সকালে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলন এবং “মুজিব চিরঞ্জীব” মঞ্চে বঙ্গবন্ধুর আবক্ষ ভাস্কর্যে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। কলকাতায় নিযুক্ত বাংলাদেশের উপ-হাইকমিশনার তৌফিক হাসান-এর নেতৃত্বে উপ-হাইকমিশনের রাজনৈতিক, ক্রীড়া ও শিক্ষা, বাণিজ্য, কনস্যুলার এবং প্রেস উইং-এর দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা বঙ্গবন্ধুর আবক্ষ মূর্তিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এ ছাড়া উপ-হাইকমিশনের সকল কর্মচারি, কলকাতায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স, সোনালী ব্যাংক লিমিটেড-এর কর্মকর্তা/কর্মচারি বঙ্গবন্ধুর আবক্ষ ভাস্কর্যে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপর বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্র মন্ত্রী এবং পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর পাঠানো বানী পাঠ করে শোনান যথাক্রমে কাউন্সেলর (শিক্ষা ও ক্রীড়া) রিয়াজুল ইসলাম, কাউন্সিলর (কনস্যুলার) মো: বশির উদ্দিন, প্রথম সচিব (বাণিজ্যিক) মো: শামসুল আরিফ এবং প্রথম সচিব (রাজনৈতিক-২) মিস সানজিদা জেসমিন।

চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা

এর আগে শিশু দিবস উপলক্ষ্যে ১৬ মার্চ  বিকেলে উপ-হাইকমিশনের বাংলাদেশ গ্যালারিতে শিশু-কিশোরদের জন্য ‘বঙ্গবন্ধু ও সোনার বাংলা’ এর ওপর  চিত্রাঙ্কন এবং “বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ” বিষয়ক রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।
দ্বিতীয় ধাপের অনুষ্ঠানে প্রথমেই বঙ্গবন্ধুর উপর নির্মিত প্রামান্য চিত্র প্রদর্শন করা করা হয়। এরপর উপ-হাইকমিশনার তৌফিক হাসান স্বাগত বক্তব্য রাখেন। বঙ্গবন্ধুর জীবনীর ওপর এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আমার বাবা ছিলেন বঙ্গবন্ধুর ভক্ত-ফিরহাদ হাকিম

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মাননীয় নগরোন্নয়ন ও পুর বিষয়ক, পরিবহণ এবং আবাসন দফতরের মন্ত্রী এবং কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম বলেন- “আমার বাবা ছিলেন বঙ্গবন্ধুর ভক্ত। বাবার কাছে শুনতে শুনতে আমি ছোট বেলা থেকেই বঙ্গবন্ধুর অনুরাগী। বঙ্গবন্ধুর শেখানো অসাম্প্রদায়িক রাজনীতির চর্চা আমরা করে চলেছি।“

পুরস্কার ও খাবার বিতরণ

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মৈত্রী সম্মাননাপ্রাপ্ত বিশিষ্ট সাংবাদিক মানস ঘোষ ও প্রখ্যাত লেখক, সাংবাদিক ও সমাজকর্মী শাহরিয়ার কবির।এর আগে চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ী শিশু-কিশোরদের (ছাত্র-ছাত্রী) মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের মাঝে বিতরণ করা হয় খাবার।
পরিশেষে শিশু-কিশোরদের আবৃত্তি, নাচ পরিবেশন, গার্গী ও তার দলের নৃত্য পরিবেশ  এবং শিল্পী অর্নব বসু ও শিল্পী নূরজাহান আলিম এর সংগীত দর্শক শ্রোতাদের মুগ্ধ করে।

Published on: মার্চ ২৬, ২০২২ @ ১৬:২৪


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •