রেশন কার্ড আছে অথচ ব্যবহার করেন না, কি হতে পারে জানেন- কি বলছেন রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ

Main দেশ রাজ্য
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

রাজ্যে মোট ১০ কোটি ৩৩ লক্ষ রেশন কার্ড আছে, তার মধ্যে ৫ কোটি ৪৪ লক্ষ ভ্যালিডেশন হয়েছে অর্থাৎ যাচাইকরণের কাজ সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে।
 Published on: আগ ৩, ২০২১ @ ১৯:১৯
Reporter: Aniruddha Pal

এসপিটি নিউজ, কলকাতা, ৩ আগস্ট:  রাজ্যজুড়ে এখন চলছে রেশন কার্ডের সঙ্গে আধার কার্ডের সংযুক্তিকরণ। রেশন ব্যবস্থায় স্বছতা আনতেই এই ব্যবস্থা করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ। এমন অনেকেই আছেন যাদের রেশন কার্ড থাকা সত্ত্বেও রেশন দোকানে যান না, অন্য কাউকে দিয়ে দেন রেশন তোলার জন্য। নিজে ব্যবহার করেন না। এখন আর তা করা যাবে না। জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী। আর কেউ যদি নিজের রেশন কার্ড নিজে ব্যবহার না করেন তাহলে কি হতে পারে তাও জানিয়েছেন মন্ত্রী রথীন ঘোষ।

ন্যাশনাল ফুড সিকিউরিটি অ্যাক্টে যাদের কার্ড

সংবাদ প্রভাকর টাইমসকে খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ বিষয়টি পরিষ্কার করে দেন। বলেন- সুপ্রিম কোর্ট একটা জাজমেন্ট দিয়েছিল, যেখানে তারা বলেছিল- ওয়ান নেশন ওয়ান কার্ড। সেটা, যাদের ন্যাশনাল ফুড সিকিউরিটি অ্যাক্টে কার্ড আছে তেমন কেউ যদি ধরা যায় বিহার থেকে এখানে আসে সে তার কার্ডে রেশন তুলতে পারবে। প্রথম দফায় ৫০ শতাংশ পাবে তারপর আবার সাতদিন বাদে পাবে -এটা বলা হয়েছে।

গ্রাহক এসএমএস-এর মাধ্যমে জানতে পারবেন তিনি কতটা মাল পেলেন

“আমাদের রাজ্যে একটা খাদ্য সুরক্ষা যোজনা আছে। যাতে গ্রাহকের খাদ্য সুরক্ষিত থাকে। সেই মতো আমরা সমস্ত আধার লিঙ্ক করছি। আমাদের রাজ্যের মধ্যেই করা হচ্ছে। এর ফলে গ্রাহক কতটা মাল পেল সেটাও এসএমএস-এর মাধ্যে তার কাছে চলে যাবে। খাদ্যসাথী সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য তিনি জানতে পারবেন। একজনের রেশনের মাল অন্য কেউ তুলতে পারবে না। একটা স্বচ্ছতা থাকবে।” বলেন খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ।

আধার সংযুক্তিকরনের পর বোঝা যাবে এধরনের কত কি আছে

অনেকে আছে যাদের রেশন কার্ড থাকা সত্ত্বেও তারা রেশন তোলেন না কিংবা নিজে তা ঠিক মতো ব্যবহার করেন না। এটা নিয়ে কি ভাবছে রাজ্য সরকার? এই প্রশ্নের জবাবে খাদ্যমন্ত্রী বলেন- “সেক্ষেত্রে কেউ যদি দু’মাস রেশন কার্ড সক্রিয় না রাখেন অর্থাৎ ব্যবহার না করেন সেক্ষেত্রে আইন অনুযায়ী তার কার্ডটা বাতিল হয়ে যায়। নিয়ম তাই। কিন্তু এখানে আমরা সেটা করছি না। আমরা সেটা নিয়ে পরবর্তী সময় ভাবব। এখন আমরা আধার সংযুক্তিকরনের পর বুঝতে পারব এধরনের কত কি আছে। তারপরে আমরা কথা বলব মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে।”

রেশন তুলতে গ্রহীতাকে এবার রেশন দোকানে যেতেই হবে

“অনেক সভ্রান্ত পরিবার আছে যারা রেশন কার্ডটা বাড়ির কাজের লোককে দেয়।্সে রেশন দোকানে গিয়ে মাল তুলে নিয়ে আসে। এবার যেহেতু বায়োমেট্রিক দিয়ে করতে হবে তাই যার রেশন কার্ড সেই ব্যক্তিকে রেশন দোকানে যেতেই হবে। এবার তিনি যদি না যান তাহলে বুঝতে হবে তিনি এটা ব্যবহারে ইচ্ছুক নন।” বলেন খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ।

এক পরিসংখ্যান তুলে ধরে খাদ্যমন্ত্রী বলেন- “এখনও পর্যন্ত ৫ কোটি ৪৪ লক্ষ কার্ড ভ্যালিডেশন হয়েছে। আমাদের রাজ্যে মোট ১০ কোটি ৩৩ লক্ষ রেশন কার্ড আছে, তার মধ্যে ৫ কোটি ৪৪ লক্ষ ভ্যালিডেশন হয়েছে অর্থাৎ যাচাইকরণের কাজ সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। আরও ৩ কোটি ইন প্রসেসে আছে। সেটা সম্পূর্ণ হলে বোঝা যাবে এই ব্যাপারটা কোন জায়গায় আছে।”

Published on: আগ ৩, ২০২১ @ ১৯:১৯


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •