নাম না করে রাজীবকে তোপ মমতার- বন-সহায়ক নিয়োগ নিয়ে ও কিছু কারসাজি করেছে, আমি তদন্ত করছি

Main দেশ রাজ্য
শেয়ার করুন

Published on: ফেব্রু ৩, ২০২১ @ ১৭:৩৪

এসপিটি নিউজ, আলিপুরদুয়ার, ৩ ফেব্রুয়ারি:   আলিপুরদুয়ার প্যারেড গ্রাউন্ডে তৃণমূল কংগ্রেসের এক জনসভায় আজ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ক্ষোভের কেন্দ্রবিন্দু ছিলেন দলত্যাগী রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোয়াধ্যায়।বলেন- যে ছেলেটা আমাদের দল থেকে বেরিয়ে গেছে সে বন-সহায়ক নিয়োগ নিয়ে কারসাজি করেছে। আমি তার তদন্ত করছি। নির্বাচন ঘোষণা হয়ে গেলেও তদন্ত চলবে। একই সঙ্গে বিজেপি-র বিরুদ্ধেও তিনি ক্ষোভ উগরে দেন। জানিয়ে দেন- বিজেপি একটাও আসন পাবে না। কিছু আসন পাবে বাম-কংগ্রেস।

‘চুরি করে বিজেপি-র পকেটে চলে গেছে’-মমতা

নাম না করে বুধবার আলিপুরদুয়ারের জনসভায় দাঁড়িয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন- “আমি জানি যে ছেলেটা আমাদের দল থেকে চলে গেছে, যে আমাদের সঙ্গে ছিল কিন্তু এখন চলে গেছে সে বন সহায়ক নিয়োগ নিয়ে কিছু কারসাজি করেছে। এই অভিযোগ আমাকে অনেকেই জমা দিয়েছেন।আমি তার তদন্ত করছি। আপনারা ভরসা রাখুন চার-পাঁচ দিনের মধ্যে নির্বাচনের নির্ঘণ্টা ঘোষণা হয়ে যাবে। কিন্তু তদন্ত তো চলবেই। কিন্তু এরপর যারা আপনাদের মধ্যে বঞ্চিত হয়েছেন আমরা তা রিভিউ করব। আমরা দেখবো। যা সত্যি হবে তা আমরা পুনর্বিবেচনা করব। ওই ছেলেটা এখন খুব বড় বড় কথা বলছে। বন সহায়ক নিয়োগ নিয়ে কি করেছে তা ওকে জিজ্ঞাসা করুন। চুরি করে বিজেপি-র পকেটে চলে গেছে।”

‘তৃণমূলের সঙ্গে যারা বদমায়েশি করেছে তাদের নিয়ে যাওয়া হচ্ছে জেট ফ্লাইটে’

বিশেষ ফ্লাইট পাঠিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ যেভাবে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে ডেকে দিল্লিয়ে গেছেন তা নিয়েও এদিনের সভায় দাঁড়িয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন- “লকডাউনের সময় ট্রেনের টিকিট কাটার জন্য শ্রমিকদের হাতে এক পয়সা ছিল না। আমরা ট্রেনের টিকিট কেটে দিয়েছিলাম। মোদিজি! আজ তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে যারা বদমায়েশি করেছে দুর্নীতি করেছে তাদের নিয়ে যাওয়া হচ্ছে জেট ফ্লাইটে। আর পরিযায়ী শ্রমিক যারা ঘরে ফিরেছে তাদের রাস্তায় পায়ে হেঁটে হেঁটে বাক্সের উপর বাচ্চাকে শুয়ে নিয়ে এসেছে। এই তো আপনাদের রাজনীতি।”

ওদের লম্ফজম্ফ সব বন্ধ হয়ে যাবে বিধানসভার পর-মমতা

দলত্যাগীদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে মমতা বলেন- “যারা দুর্নীতি করেছে তাদের পালাতে দিন। আমার জানা আছে কে কি করেছে। ওদের লম্ফজম্ফ সব বন্ধ হয়ে যাবে বিধানসভার পর। সব দেখা হবে তখন। বাংলায় তো সব খালি আছে। বিজেপি একটাতেও জিততে পারবে না। কিছু সিটে সিপিএম-কংগ্রেস জিতবে। তৃণমূল কংগ্রেসের সিট নেওয়া অত সহজ নয়। মনে রাখবেন তৃণমূল কংগ্রেস জীবনভর লড়ে এসছে লড়ে যাবে। কিন্তু বিজেপিকে বাংলা থেকে তাড়াবো, দেশ থেকে তাড়াবো। এ আমাদের প্রতিজ্ঞা। আমরা সব ভয়-টয় পাই না। কেউ ভয়ে পালিয়ে যাচ্ছে। সেগুলোকে বলুন, তোমার লেজে আগুন লাগিয়ে যখন লঙ্কাকান্ড ঘটাবে তখন বুঝতে পারবে ল্যাজ পোড়া বিজেপি।”

Published on: ফেব্রু ৩, ২০২১ @ ১৭:৩৪


শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

41 + = 48