কলকাতায় আমার ভালো বন্ধু অনিল পাঞ্জাবি- রক্সাবন্ধনের প্রেস কনফারেন্সে বললেন অক্ষয় কুমার, দেখা হতেই জড়িয়ে ধরলেন

Main দেশ বিনোদন ভ্রমণ রাজ্য
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 Published on: আগ ৮, ২০২২ @ ২৩:৫১
Reporter : Aniruddha Pal

এসপিটি নিউজ, কলকাতা, ৮ আগস্ট: সুপারস্টার অক্ষয় কুমার সম্পর্কে একটা কথা প্রায়ই শোনা যায়- তিনি অনেক বড় মনের মানুষ। সুপারস্টার হয়েও তিনি রয়ে গেছেন একজন কাছের মানুষ। কলকাতায় আজ সোমবার তিনি এসেছিলেন তাঁর নতুন ফিল্ম – রক্সাবন্ধনের প্রচারে। সেই উপলক্ষ্যে তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন।আর সেই প্রেস কনফারেন্সে অক্ষয় কুমার কলকাতার প্রসঙ্গ উঠতেই কিছুটা নস্টালজিক হয়ে পড়েন।বলেন- কলকাতায় তাঁর একজন ভালো বন্ধু অনিল পাঞ্জাবি। দেখাও করেন তার সঙ্গে এয়ারপোর্টে। বন্ধুর সঙ্গে দেখা করার জন্য ২০ মিনিট অপেক্ষাও করেন সুপারস্টার অক্ষয় কুমার।

দেখা হওয়ার মুহূর্ত বর্ণনা করলেন অনিল পাঞ্জাবি

এ প্রসঙ্গে এসপিটি-কে অনিল পাঞ্জাবি বলেন- আজ আমার কাছে এক বিশেষ দিন। আমার একান্ত প্রিয় বন্ধু অক্ষয় কুমারের সঙ্গে দেখা হয়েছে। স্ব-পরিবারে আজ আমরা দেখা করেছি। তার নতুন ফিল্ম রক্সাবন্ধন-এর প্রচারে কলকাতায় এসেছিলেন। সেই উপক্ষ্যে এক প্রেস কনফারেন্স করেন। আর সেখানেই তিনি বলেছেন- কলকাতায় আমার একজন ভালো বন্ধু অনিল পাঞ্জাবি। প্রেস কনফারেন্স শেষ হওয়ার দশ মিনিট বাদেই আমাকে ফোন করেন। ফোন করে বলেন- তুমি ডিপিএস-এ চলে এসো। আমি জানাই যে ডিপিএস এখান থেকে অনেক দূরে আছে। এরপর অক্ষয় দুপুর তিনটে নাগাদ ফোন করে বলেন- ফ্লাইট ছাড়তে দেরী হবে- তুমি এয়ারপোর্ট চলে এসো। ও প্রাইভেট জেট নিয়ে আসে। আমি দেখা করার জন্য রওনা হই। সেখানে আমাদের মধ্যে ৫-১০ মিনিট কথা হয়েছে। দেখা হতেই আমায় জড়িয়ে ধরেছে। তারপর সেখানে সকলের সামনেই বলেছে- কলকাতায় আমি ১৮ মাস ছিলাম। তখন আমার চাকরি ছিল না। তুমি আমায় চাকরি দিয়েছো। এত দিন বাদেও এত বড় মাপের একজন সুপারস্টার হয়েও অক্ষয় কুমার ভুলে যায়নি তার বন্ধুকে। এটা আমাকে ওর প্রতি শ্রদ্ধা বাড়িয়ে দিয়েছে।

আমার মেয়ের যখন এক বছর বয়স সেই সময় অক্ষয় কুমার ওকে কোলে নিয়েছিল। সেই ছবি আজও আমাদের কাছে রাখা আছে। আজ সেই ছবি দেখাতেই ন্সটালজিক হয়ে পড়েন বন্ধু অক্ষ্য। বলেন অনিল পাঞ্জাবি।

প্রেস কনফারেন্সে অক্ষয় কুমার ফিরে গেলেন পুরনো স্মৃতিতে

এর আগে প্রেস কনফারেন্সে অক্ষয় কুমারকে স্পষ্ট মেজাজে দেখা গেছে। সেখানে তিনি কলকাতার সঙ্গে তার সম্পর্কের কথা বলেছেন। তাকে বাংলায় কিছু বলতে বলা হলে তিনি উত্তরে বলেন-“বাংলায় বলতে হবে আমি তোমাকে ভালোবাসি।তবে আমি এর পরিবর্তে অন্য কিছু বলতে চাই।”

তারপর অভিনেতা আশির দশকের গোড়ার দিকে ষরে তার থাকার কথা স্মরণ করেন। “আমি এখানে মানে কলকাতায় এই প্রথম নয়। আমি এখানে একাধিকবার এসেছি। কিন্তু আমি জানি না আপনারা কতজন জানেন যে আমি এখানে কলকাতায় কাজ করতাম। আমি দুই বছর কাজ করেছি, ১৯৮৪ এবং ‘৮৫। আমি নিউ মার্কেটের কাছে গ্লোব সিনেমায় কাজ করেছি। দুঃখের বিষয় আজ জানতে পারলাম সিনেমা হল ভেঙে ফেলা হয়েছে। যে ব্যক্তি গাড়ি চালাচ্ছিল তাকে জিজ্ঞাসা করলাম, ‘গ্লোব সিনেমা আভি ভি হ্যায়?’ বললেন, “তড় দিয়া। বন্ধ হো জ্ঞেয়া।” যে হৃদয়বিদারক ছিল, আমি সেখানে অনেক সিনেমা দেখেছি। বলেন অক্ষয়।

তার কলকাতার দিনগুলিকে স্মরণ করে অক্ষয় বলেছেন, “আমার জীবনের এই দুই বছরে আমি অনিল পাঞ্জাবি নামে একজন খুব ভালো বন্ধু পেয়েছি। কিন্তু অবশেষে, আমরা একে অপরের সাথে যোগাযোগ হারিয়ে ফেলেছি। আমি তার  সাথে পরে একবার দেখা করেছি। কলকাতার সঙ্গে আমার অঙ্কে স্মৃতি আছে।”

কে এই অনিল পাঞ্জাবি

অনিল পাঞ্জাবি একজন পর্যটন ব্যবসায়ী। সারা দেশের মধ্যে অন্যতম ট্রাভেল আইকন হিসাবে সুখ্যাতি আছে তার। দেশে-বিদেশে পর্যটন জগতে অত্যন্ত সুপরিচিত নাম অনিল পাঞ্জাবি। সংবাদ প্রভাকর টাইমস-এ চলতি বছরের বৈশাখি সংখ্যায় অনিল পাঞ্জাবির উপর এক বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। আর সেখানে বিস্তারিত আছে। সেখানেও উল্লেখ করা হয়েছে উখয় কুমারের খুব ভালো বন্ধু হলেন অনিল পাঞ্জাবি। কলকাতায় এলেই কথা হয় কিংবা দেখা হয় দু’জনের মধ্যে। সেই ধারা আজও চলছে দুই বন্ধুর মধ্যে। বন্ধুত্ব যে চিরভাস্বর, অমলিন, উজ্জ্বল- তা বুঝিয়ে দিয়ে গেলেন সুপারস্টার অক্ষয় কুমার।

Published on: আগ ৮, ২০২২ @ ২৩:৫১


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •