একেই বলে ‘ ভগবান ‘ -এর কীর্তি ! গোপীবল্লভপুরের যুবকরা বেঁধে দিল ঘর, সঙ্গে দিল প্রয়োজনীয় যৌতুকও

Main দেশ রাজ্য
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সংবাদদাতাঃ আকাশ শীট

এসপিটি নিউজ,গোপীবল্লভপুর: কথায় বলে-যার কেউ নেই, তার ভগবান আছে।কিন্তু সেই ভগবাঙ্কে কেউ দেখেনি। কিন্তু তবু কেন এমন কথা বলে মানুষ? এই প্রশ্ন উঠতেই পারে।এর উত্তরও আছে আমাদেরই মধ্যে। কারণ, যেমব মানুষ সমাজের কথা ভাবে, অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের সাহায্য করে, যারা বিপদ্গ্রস্ত মানুষের পাশে এসে তাদের উদ্ধার করে আসল ‘ভগবান’ তো তারাই। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার গোপীবল্লভপুরেও আছে এমনই মানুষ। যারা আজ কিছু সহায়-সম্বলহীন দরিদ্র অসহায়দের ঘর বেঁধে দিল। নতুন সংসার গড়ে দিল। পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম সহ উড়িষ্যার ময়ুরভঞ্জ জেলার ১৫ জোড়া পাত্র-পাত্রীরচার হাতকে এক করে দিল।সাল পাঁকে বাধা পড়ল তারা।গোপীবল্লভপুরের ত্রিবেণী যুব জনকল্যান অর্গানাইজেশান-এর এমন মহতী উদ্যোগকে সাধুবাদ দিচ্ছেন সকলেই।

আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গোপীবল্লভপুরের যাত্রাময়দানে এমনি এক গণ-বিবাহের আয়োজন করা হল।যেখানে পশ্চিম মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রাম জেলার বিভিন্ন ব্লকের পাশাপাশি উড়িষ্যার মূয়রভঞ্জ জেলার যুবক-যুবতীদের বিয়ে দেওয়া হয়।আট বছর ধরে গোপীবল্লভপুরের ত্রিবেণী জন যুবকল্যান অর্গানাইজেশান গণ-বিবাহের আয়োজন করে আসছে।এক প্রত্যন্ত এলাকায় থেকেও যেভাবে এই সংস্থার সদস্যরা অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের বেঁচে থাকার পথ করে দিয়ে চলেছেন তা ‘ভগবান’-এর কাজ ছাড়া কি-ই বা বলা যাবে বলুন তো! দেখতে দেখতে তাদের এই কর্মকাণ্ড ন’বছরে পা দিল।এদিনের গণবিবাহে মোট ১৫ জোড়া পাত্র-পাত্রীর বিবাহ হয়।এদিন সন্ধ্যায় গণ-বিবাহ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন শ্রীপাট গোপীবল্লভপুরের মহন্ত শ্রীশ্রী কৃষ্ণকেশবা নন্দ দেবগোস্বামী।এই বিয়ে দেখতে উপস্থিত ছিলেন এলাকার উতসাহী মানুষজন।গোপীবল্লভপুরের ত্রিবেণী যুব জনকল্যান অর্গানাইজেশানের পক্ষ থেকে প্রত্যেককে সাইকেল, বিছানাপত্র,জামাকাপড়,বাসন এবং বিভিন্ন জিনিসপত্র দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অনগ্রসর শ্রেনীকল্যাণ মন্ত্রী চূড়ামনি মাহাত,সংস্থার সভাপতি পশুপতি নায়েক ও সম্পাদক সনাতন দাস সহ গোপীবল্লভপুর ত্রিবেণী যুব জনকল্যান অর্গানাইজেশানের কর্মীরা।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *