লকডাউনে দক্ষিণ আফ্রিকায় সিংহরা জঙ্গল থেকে বেরিয়ে রাস্তায় এসে বিশ্রাম নিচ্ছে

কোভিড-১৯ বন্যপ্রাণ বিদেশ ভ্রমণ
শেয়ার করুন

  • দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রুগার ন্যাশনাল পার্কের সিংহরা এখন রাস্তায় উঠে এসেছে। দল বেঁধে তারা শান্তিতে সেখানে বিশ্রাম নিচ্ছে।
  • করোনাভাইরাসের কারণে দক্ষিন আফ্রিকায় লকডাউন চলছে। ফলে 25 মার্চ থেকে পার্ক বন্ধ আছে।
  • কেএনপি-র এখনো বিস্তীর্ণ এলাকা বনাঞ্চল এবং সেখানে বন্য জীবজন্তু বেশি সক্রিয় আছে।

Published on: এপ্রি ১৮, ২০২০ @ ২৩:৪০

এসপিটি নিউজ ডেস্ক:  ‘আহা কী আনন্দে আকাশে বাতাসে’…

প্রকৃতি যেন আজ দারুন খুশী। আনন্দে সে যেন এভাবেই আজ তার প্রকাশ জানান দিয়ে চলেছে। গোটা বিশ্বে মানুষ যখন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। চলছে মৃত্যুর মিছিল- তখন বিভিন্ন প্রান্তের প্রাণীদের মনে আজ বড়ই খুশীর দিন এসেছে। মানুষ আজ ঘরের ভিতর আর সমস্ত প্রাণীরা মনের আনন্দে নিজের ইচ্ছা মতো ঘুরছে-ফিরছে। আমেরিকার বিখ্যাত নিউজ চ্যানেল সিএনএন এমনই এক সংবাদ ছবি সহ সামনে নিয়ে এসেছে যেখানে দেখা গিয়েছে- জঙ্গলের সিংহরা আজ ফাঁকা রাস্তায় নিজের ইচ্ছে মতো শুয়ে গড়াগড়ি খাচ্ছে।

বিশ্বের বিভিন্ন প্রাণী জীবনকে দারুনভাবে উপভোগ করছে

ওয়েলসের ছাগল হোক বা ইতালির বুনো শুয়োর কিংবা সমুদ্রের ডলফিন-   করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের সময় বিশ্বের বিভিন্ন প্রাণী জীবনকে দারুনভাবে উপভোগ করছে।সেটা যে কতটা সত্যি সেই ছবি সামনে নিয়ে এসেছে সিএনএন। দক্ষিন আফ্রিকার ক্রুগার ন্যাশনাল পার্কের সিংহরা এখন রাস্তায় উঠে এসেছে। দল বেঁধে তারা শান্তিতে সেখানে বিশ্রাম নিচ্ছে।ক্রুগার ন্যাশনাল পার্ক এমনই কিছু ছবি দিয়ে এক ট্যুইট করেছে। সেখানে লেখা হয়েছে- ” এই সিংহ সাধারণতঃ কেম্পিয়ানা কন্ট্রাকচুয়াল পার্কের বাসিন্দা, ক্রুগারের পর্যটকরা এদের দেখতে পায় না। আজ বিকেলে তারা অর্পেন রেস্ট ঠিক বাইরে ট্যার রোডে শুয়েছিল।বিভাগীয় রেঞ্জার রিচার্ড সোউরি ছবিগুলি লেন্স বন্দী করেন।

পার্কের সিংহদের মনে আজ বড়ই মজা

সাধারণতঃ এই ক্রগারে প্রচুর পর্যটক আসে। বর্তমানে করোনাভাইরাসের কারণে দক্ষিন আফ্রিকায় লকডাউন চলছে। ফলে 25 মার্চ থেকে পার্ক বন্ধ আছে। রাস্তায় চলছে না কোনও গাড়ি। তাই পার্কের সিংহদের মনে আজ বড়ই মজা। তাই তারা দল বেঁধে চলে এসেছে রাস্তায়। সেখানেই নিশ্চিন্তে গা এলিয়ে দিয়ে বিশ্রাম নিচ্ছে।পার্কের মুখপাত্র আইজাক ফাহলা সিএনএনকে বলেন,  “দিনের বেলা এই রাস্তায় শুয়ে থাকার কথা চিন্তাও করা যায় না, কারণ সাধারণ পরিস্থিতিতে এখানে ট্র্যাফিক থাকে এবং তখন সিংহের দল পার্কে ঝোপের মধ্যে থাকে।”

পশুর আচরনে কোন পরিবর্তন হয়নি

ফটোগুলি তোলার সময় ফাহলা লক্ষ্য করেন যে লকডাউনের কারণে পশুর আচরনে কোন পরিবর্তন হয়নি। তারা কেবল এমন জায়গা দখল করে আছে যেখানে পর্যটকরা থাকলে তারা সেই জায়গা এড়িয়ে চলত। মানুষজনকে মনে রাখা উচিত যে কেএনপি-র এখনো বিস্তীর্ণ এলাকা বনাঞ্চল এবং সেখানে বন্য জীবজন্তু বেশি সক্রিয় আছে। যদিও দর্শনার্থীদের সেখানে এখন নিষিদ্ধ করা হয়েছে, খাদ্য সরবরাহ, জ্বালানী সরবরাহ, সুরক্ষা এবং জরুরি পরিষেবা এবং বন্যজীবনের উপর অপরাধমূলক ক্রিয়াকলাপ অব্যাহত রয়েছে- দক্ষিণ আফ্রিকার জাতীয় উদ্যান (সানপার্কস) এক বিবৃতিতে এমনটাই জানিয়েছে।

Published on: এপ্রি ১৮, ২০২০ @ ২৩:৪০

 


শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

+ 69 = 77