ভ্যালেনটাইন’স ডে’র জন্য Qatar Airways কার্গো 5 হাজার টন শুধু ফুলই পরিবহন করেছিল

Main দেশ বিদেশ বিমান ভ্রমণ
শেয়ার করুন

Published on: ফেব্রু ১৭, ২০২১ @ ১৮:৪০

এসপিটি নিউজ ডেস্ক:   ভালেনটাইন্স ডে’তে কাতার এয়ারওয়েজ কার্গো পন্য বহন করে সারা বিশ্বে নজর কাড়ল। ওইদিন তারা 5 হাজার টন ফুল পরিবহন করেছিল। যার মধ্যে বেশির ভাগ ছিল গোলাপ আর কার্নেশন ফুল। আর এই ফুল পরিবহনের জন্য তারা বিরামহীন শীতল চেন সরবরাহ করেছিল।যাতে ফুলগুলি তরতাজা থাকে।ভালোবাসার দিনে কাতার এয়াওয়েজের এমন উদ্যোগ সারা বিশ্বজুড়েই প্রশংসা আদায় করেছে।

কাতার এয়ারওয়েজ জানিয়েছে, ভ্যালেনটাইন’স ডে’তে তারা তাদের মূল বাজারগুলিতে চাহিদা মেটাতে অতিরিক্ত ফ্লাইট এবং চার্টার চালু করে 5000 টনেরও বেশি ফুল পরিবহন করেছিল। যার মধ্যে গোলাপ ও কার্নেশন ফুল ছিল। কার্গো পরিষেবায় এ এক সত্যিই বিরল ঘটনা। যেখানে শুধুমাত্র ফুল পাঠানোর জন্য কাতার এয়ারওয়েজকে এমন ব্যবস্থা নিয়েছিল।2021 এর ভ্যালেন্টাইন’স ডে -এর জন্য ফুলের রফতানি বৃদ্ধি এয়ারলাইন্সের শীতল চেইন সমাধানগুলিতে গ্রাহকদের আস্থার একটি বড় প্রমাণ।এ এক সত্যিই বড় ইভেন্ট।

ফুলগুলিকে একেবারে তরতাজা রেখে তা সঠিক জায়গায় পৌঁছে দেওয়াই ছিল কাতার এয়ারওয়েজের প্রধান লক্ষ্য। আর এজন্য তারা বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছিল, যেখানে ফুলগুলিকে এক নির্দিষ্ট তাপমাত্রার পরিবেশের মধ্যে রেখে রক্ষণাবেক্ষণ করা। কার্গো ক্যারিয়রে বিশ্বজুড়ে ফুল পাঠানো হয়েছে। যেখানে ফুলের প্রধান বাজার হল- ইকুয়েডর, কলম্বিয়া এবং কেনিয়া। তবে অন্যান্য দেশের মধ্যে নেদারল্যান্ডস, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা, উগান্ডা, থাইল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা এবং ইথিওপিয়া থেকেও ফুল নিয়ে আসা হয়।চাহিদা মেটানোর জন্য কাতার এয়ারওয়েজ কার্গো কুইটো থেকে আটটি বোয়িং 777 মালবাহী পরিবহন পরিচালনা করেছিল, যার নির্ধারিত চারটি সাপ্তাহিক বোয়িং মালবাহী ছাড়াও ইউরোপীয় ও অস্ট্রেলিয়ান বাজারের গন্তব্যে ফুল নিয়ে গেছিল।

কুইটো থেকে মিয়ামিতে তারা তিনটি নিয়মিত মালবাহক যুক্ত করেছিলেন। মিয়ামি আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের বৃহত্তম বিতরণ কেন্দ্র হিসাবে কাজ করে। এখানে নিয়মিত চারটি সাপ্তাহিক বোয়িং 777 মালবাহী ফুল পরিবহনের কাজে যুক্ত হয়েছিল। পাশাপাশি ভ্যালেনটাইন’স ডে-এর শিপমেন্টকে সমর্থন করার জন্য নাইরোবি থেকে 13টি মিনি মালবাহী এবং পাঁচটি বোয়িং 777 মালবাহী যুক্ত করেছে। বোগোতা থেকে, ক্যারিয়ার দুটি সাপ্তাহিক বোয়িং 777 মালবাহী ফুল পরিবহন করেছিল। এটি ইকুয়েডরে পঞ্চম ভ্যালেন্টাইন মরশুম, কলম্বিয়া থেকে দ্বিতীয় এবং কেনিয়া থেকে ষোলোতম মরশুম।

সব মিলিয়ে 2020 সালে সামগ্রিকভাবে, কাতার এয়ারওয়েজ কার্গো প্রায় 32,000 টন ফুল ভন করেছে করেছে।

Published on: ফেব্রু ১৭, ২০২১ @ ১৮:৪০


শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

− 6 = 3