তারাপীঠ মন্দিরের গর্ভগৃহে প্রবেশ এখনই নিষিদ্ধ হচ্ছে না, সিদ্ধান্ত জানা যাবে আরও কিছুদিন বাদে

দেশ ভ্রমণ রাজ্য
শেয়ার করুন

Published on: সেপ্টে ১০, ২০১৮ @ ১৮:৪৭

এসপিটি নিউজ, তারাপীঠ, ১০ সেপ্টেম্বরঃ গত কয়েকদিন ধরেই বিষয়টি নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে খুব তোলপাড় হয়ে চলেছে। তারাপীঠে এখন থেকে আর মা তারা গর্ভগৃহে প্রবেশ করা যাবে না। কেউ কেউ এটাও বলতে শুরু করে দেয়-কৌশিকী অমাবস্যাতেই এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হতে চলেছে।একটা অংশ এটাকে খুব ভালোভাবেই নেয়। আর এক অংশ খুব হতাশ হয়। এখন থেকে মা’কে বাইরে থেকেই দর্শন করে চলে আসতে হবে, এই ভেবে। কৌশিকী অমাবস্যা কেটে গেছে। তারাপীঠ মন্দির কমিটির সভাপতি তারাময় মুখোপাধ্যায় সংবাদ প্রভাকর টাইমস-কে জানালেন- “না, এই সিদ্ধান্ত এখনও স্থায়ীভাবে কার্যকর হয়নি। কমিটির পরবর্তী সভায় এ নিয়ে আলোচনার পর সিদ্ধান্ত হবে।”

তবে এ ধরনের সিদ্ধান্ত কার্যকর হলে মন্দিরের গর্ভগৃহ যে অনেকটাই পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকবে তা বলাই বাহুল্য। যেভাবে প্রতি অমাবস্যায় ভক্তদের ভিড় হয় তা নিয়ে হিমশিম খেতে হয় হাতে গোনা কয়েকজন বেসরকারি নিরাপত্তারক্ষীকে। মন্দিরের ভিতরে ও বাইরে কোথাও দেখা মেলে না সরকারি নিরাপত্তাকর্মীদের।  বছরের বিশেষ দিনগুলিতে বিশেষ দক্ষিণার বিনিময়ে মন্দিরের গর্ভগৃহে প্রবেশের ছাড়পত্র মেলে। এখন প্রশ্ন উঠছে, গর্ভগৃহে প্রবেশ নিষিদ্ধ করে দিলে সেইসব সেবাইতদের উপার্জনের পথ তাহলে কিভাবে হবে? বছরে তো মাত্র কয়েকটি দিন এই সুযোগ আসে। এবার তাদের কি হবে?

এই প্রশ্নের জবাব মন্দির কমিটির সভাপতি তারাময় মুখোপাধ্যায় সরাসরি না দিলেও তিনি বলেন-“এ ব্যাপারে সেবাইতদের অনেকেই একমত হয়েছেন। বিষয়টি আমরা নজরে রেখেছি। মন্দির কমিটির পরবর্তী সভা যা এক মাস বাদে হওয়ার কথা সেখানে এই বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হবে। তখন এই নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে।”

তিনি আরও বলেন-একসময় তো মন্দিরের গর্ভগৃহে শিলামূর্তি স্নানের সময় অনেক মানুষ ভিতরে থাকতেন। এখন তো তা অনেকটাই লাঘব করা সম্ভব হয়েছে। গত এক মাসে এই ছবিটা অনেকটাই বদলে গেছে। শিলা মূর্তি স্নানের সময় এখন আর বাইরের মানুষজনকে ভিতরের থাকতে দেওয়া হয় না। তাই যে কোনও সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে সময় লাগে। এক্ষেত্রেও আশা করছি, গর্ভগৃহে প্রবেশ এখন না হলেও পরবর্তী সময়ে তা স্থায়ীভাবেই কার্যকর হবে। সেক্ষেত্রে মন্দিরের নিরাপত্তা সুরক্ষিত থাকবে। মন্দিরও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকবে।

তারাপীঠের বিশিষ্ট সাহিত্যিক ও মন্দিরের প্রবীণ সেবাইত প্রবোধ বন্দ্যোপাধ্যায় এই বিষয়টি সম্পর্কে বলতে গিয়ে জানান, “কৌশিকী অমাবস্যার মতো বিশেষ দিনগুলিতে গর্ভগৃহে প্রবেশের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও তা এই মুহূর্তে স্থায়ীভাবে কার্যকর হচ্ছে না।” অর্থাৎ যা বোঝা গেল মন্দিরের গর্ভগৃহে প্রবেশ আগের মতোই থাকছে। ফাইল ছবি

Published on: সেপ্টে ১০, ২০১৮ @ ১৮:৪৭


শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

7 + 3 =