এসএফআই নেত্রীকে ফাঁসানো হচ্ছে, ক্ষমতা থাকলে আমাকে গ্রেফতার করুক পুলিশ- চ্যালেঞ্জ অশোকের

Main রাজ্য
শেয়ার করুন

সংবাদদাতা– কৃষ্ণা দাস

Published on: অক্টো ১১, ২০১৮ @ ২৩:৫৫

এসপিটি নিউজ, শিলিগুড়ি, ১১অক্টোবরঃ এসএফআই নেত্রী সুকৃতি দাসের পাঁচ দিনের পুলিশি হেফাজত হওয়ার খবর পেতেই ফুঁসে উঠলেন শিলিগুড়ির মেয়র সিপিএম নেতা প্রাক্তন পুরমন্ত্রী অশোক ভট্টাচার্য। যে মামলায় এসএফআই নেত্রী সুকৃতিকে গ্রেফতার করা হয়েছে সেই একই মামলায় নাম আছে শিলিগুড়ির মেয়র অশোক ভট্টাচার্যেরও। যেখানে একাধিক সিপিএম ও এসএফআই নেতা-নেত্রীর নাম আছে। নাম আছে প্রাক্তন সিপিএম সাংসদ জীবেশ সরকারেরও। এদের সকলের বিরুদ্ধে শিলিগুড়িতে পুলিশের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগানোর চেষ্টার অভিযোগ আছে। তারই পরিপ্রেক্ষিতে অশোকবাবুর তোপ-ঐ এসএফআই নেত্রীকে ফাঁসানো হয়েছে। ক্ষমতা থাকলে আমাকে গ্রেফতার করুক।

গত মাসের ২৪ তারিখ ইসলামপুরের দাড়িভিটে দুই ছাত্র মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে শিলিগুড়িতে বামেদের এক বিক্ষোভ মিছিল সংঘটিত হয়। ওই মিছিল থেকে মুখ্যমন্ত্রীর কুশপুত্তলিকা পোড়াবার চেষ্টা করা হলে পুলিশ তা বাধা দেয়। অভিযোগ ওঠে, সেই সময়ে পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের ধ্বস্তাধ্বস্তির সম কুশপুতুল দাহ করার জন্য আনা কেরোসিন তেল পুলিশের গায়ে ছেটান সুকৃতি ও অন্যান্য বাম নেতারা। এরপর ভিডিয়ো ফুটেজ দেখে অভিযুক্তদের চিহ্নিত করে পুলিশ। পরে শিলিগুড়ি পুরনিগমের এক মেয়র পারিষদ সহ বেশ কয়েকজন এসএফআই কর্মী ও নেতা নেত্রীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে পুলিশ।

গত বুধবার হাওড়া থেকে গ্রেফতার করা হয় সুকৃতিকে। আজ তাকে শিলিগুড়ি আদালতে হাজির করানো হয়।এদিন সুকৃতিকে আদালতে তোলা হলে আদালত তাকে পাঁচ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন। অন্যদিকে এই ঘটনায় অভিযুক্তের তালিকায় রয়েছেন সিপিআইএম নেতা তথা মেয়র অশোক ভট্টাচার্য, মেয়র পারিষদ শরদিন্দু চক্রবর্তী, বামফ্রন্টের আহ্বায়ক জীবেশ সরকার সহ অন্য আরো বাম নেতা কর্মীর নাম। বৃহস্পতিবার সুকৃতিকে আদালতে তোলার সময় তিনি বলেন, আমি আন্দোলনে ছিলাম। কেরোসিন দিয়ে কুশপুতুল পোড়ানোর চেষ্টা হয়েছিল। পুলিশকে জ্বালানোর চেষ্টার অভিযোগ মিথ্যে। পুলিশ পুলিশের কাজ করছে, আমারা আমাদের কাজ করে যাবো।

অন্যদিকে, মেয়র অশোক ভট্টাচার্য বলেন, শুনেছি আমার বিরুদ্ধেও প্ররোচনার মামলা করেছে পুলিশ। শহরেই আছি। ক্ষমতা থাকলে আমায় গ্রেপ্তার করুক। মিথ্যা মামলায় ছাত্রনেত্রীকে ফাঁসানো হচ্ছে। দল ভাঙিয়ে তৃণমূলে টানতে ভয় দেখানো হচ্ছে। আইনি পথেই এর মোকাবিলা করব।

Published on: অক্টো ১১, ২০১৮ @ ২৩:৫৫

 

 

 


শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

60 − 54 =